১৫ আগস্টে নিহত বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন জাপান আওয়ামী লীগ আহ্বায়ক মাজহারুল ইসলাম মাছুম।


সদ্য সংবাদ ডেস্কঃ 


১৫ আগস্টে নিহত বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন জাপান আওয়ামী লীগ আহ্বায়ক মাজহারুল ইসলাম মাছুম। 


   এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, ১৫ আগস্টে শুধুই কি কিছু উদ্ভ্রান্ত চিন্তার সামরিক অফিসার এই হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে? কী কারণে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল, কী কারণে বাংলাদেশকে উল্টোভাবে প্রবাহিত করা হয়েছিল- এ বিষয়গুলো আমাদের রাজনৈতিকভাবে চিন্তা করতে হবে।


জিয়াউর রহমানকে সেদিনের গভীর ষড়যন্ত্রের মূল খলনায়ক দাবি করে তিনি বলেন, শুধু জিয়াউর রহমানই নয়, এর পেছনে আন্তর্জাতিক কিছু কুচক্রী মহলের হাত ছিল। সেই কুচক্রী মহল, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তকারীদের মুখোশ জাতির সামনে উন্মোচন করা আজকের জরুরি প্রয়োজন। 

সেদিন বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে নিয়ে, শেখ মনিকে নিয়ে যেভাবে অপপ্রচার চালিয়েছে ঠিক এ সময়ে এসেও সেই কুচক্রী মহল একইভাবে বাংলার মাটিতে বসে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে জাতির কাছে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।


সব নেতাকর্মীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ পরিচালনা হচ্ছে বলেই দুর্নীতি করে কেউ ছাড় পাচ্ছে না এখন। দুর্নীতি করে কেউ ছাড় পেয়েছে- এমন নজির কেউ দেখাতে পারবে না।


বিএনপিকে উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, সে সময় জিয়াউর রহমান সংসদে ইনডেমনিটি আইন পাস করে বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার বন্ধ করে, খুনিদের দেশে নানান সুবিধা দিয়ে যে পাপ করেছে সে পাপে পাপীষ্ঠ হয়ে রাজনীতি থেকে তারা, তার দল এখন মৃত্যুর পর্যায়ে।


তিনি বলেন যারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যার ষড়যন্ত্রের সঙ্গে জড়িত ছিল, যারা ১৫ আগস্টের পটভূমি তৈরির ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখেছে তাদের কর্মকাণ্ড, তাদের মুখোশ জাতির সামনে উন্মোচন হওয়া প্রয়োজন। খুনিদের বিচার করা হচ্ছে, কিন্তু এর পেছনে যারা ছিলো তাদের মুখোশ উন্মোচন করার দরকার। এজন্য একটি কমিশন গঠন করার আহ্বান জানান তিনি। 

তিনি বলেন ,গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের নিহত সকল শহীদদের।সেই সাথে বিনম্র শ্রদ্ধা জানাচ্ছি সেদিনে, আমি মায়ের কাছে যাবো বলা ছোট্র শেখ রাসেলকে।


No comments

Powered by Blogger.