নারায়ণগঞ্জ মসজিদে বিস্ফোরণে মৃত্যু বেড়ে ২৭, বার্ন ইনস্টিটিউটের সামনে মানববন্ধন করেন চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের স্বজনরা।

 



  সদ্য সংবাদ ডেস্কঃ


নারায়ণগঞ্জ তল্লা মসজিদে বিস্ফোরণে বেঁচে থাকা ৯ জনের মধ্যে আটজনের অবস্থা সংকটাপন্ন। দগ্ধ হয়ে ঢাকা মেডিকেলের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন ৩৭ জনের ২৭ জনই মারা গেছেন। এদিকে নারায়ণগঞ্জ বিস্ফোরণের ঘটনায় সমবেদনা জানিয়ে দুপুরে বার্ন ইনস্টিটিউটের সামনে মানববন্ধন করেন চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের স্বজনরা।

আগুনে দগ্ধ হয়ে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রোগীরা।আত্মীয়দের হাহাকার,আর্তনাদ আর অশ্রুসজল চোখ ভারি করে তুলছে চারপাশ।

চেনা মানুষের মুখের অবয়ব বদলে গেছে আকস্মিক বিস্ফোরণে, চিনতে কষ্ট হচ্ছে স্বজনদেরই। আগুনে পোড়া স্বজনের ক্ষত, যন্ত্রণায় বিদ্ধ হচ্ছেন প্রতি মুহূর্তে। তবুও প্রতীক্ষা আর প্রার্থনা, দগ্ধ স্বজন যেন ফিরে আসেন নতুন জীবন নিয়ে। আছে দুর্ঘটনায় দায়ীদের বিচার নিশ্চিতের আর্জিও।

নারায়ণগঞ্জ বিস্ফোরণের ঘটনায় তিনদিনের মাথায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন একজনের ব্যাপারে কিছুটা আশা জাগানিয়া কথা শোনালেন চিকিৎসকরা।

চিকিৎসকরা জানান, একটা রোগী ভাল আছে; আর ৯ জনকে নিয়ে কিছুই বলা যাবে না। তাদেরকে আমরা সেফ করতে পারবো কি-না?

এদিকে, নারায়ণগঞ্জ বিস্ফোরণের ঘটনায় সমবেদনা জানিয়ে দুপুরে বার্ন ইনস্টিটিউটের সামনে মানববন্ধন করেন চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের স্বজনরা।

মানববন্ধনে একজন জানান, প্রতিটা দুর্ঘটনায় একটা তদন্ত কমিটি গঠন হয়। কিন্তু রিপোর্টে কি আসে; সেটা আমরা জানতে পারি না।

নারায়ণগঞ্জ বিস্ফোরণের ঘটনা তদন্ত কোনোভাবে যেন প্রভাবিত না হয়, সে দাবিও জানানো হয় মানববন্ধনে।


এসএস/বি

No comments

Powered by Blogger.