মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় যুবককে পিটিয়ে আহত,থানায় অভিযোগ।

 

সদ্য সংবাদ ডেস্কঃ 

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার ভাগলপুর গ্রামে মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় মোঃ নূর নবী (২৫) নামে এক যুবক ও তার পরিবারের সদস্যদের পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে একাধিক মামলার পলাতক আসামি মাদকসেবী তকবির কসাই ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা।

এলাকাবাসী উদ্ধার করে তাদেরকে সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়,অবস্থা গুরুতর হওয়ায় জরুরি বিভাগের ডাক্তার,আহত নূর নবীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। নুরু নবীর মা নুরুনাহার ও বাবা মহি উদ্দিন সোনারগাঁও উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি আছেন।
মাথায় আঘাতের ফলে মোঃ নূর নবীর কান দিয়ে রক্ত পড়ছে,তার অবস্থা খুবই সংকটাপন্ন।


শুক্রবার (১৮ জুন) দুপুরে সোনারগাঁও থানায় নূর নবীর বাবা আহত মহিউদ্দিন বাদি হয়ে ৪ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত ৭/৮ জনকে আসামি করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
আসামিরা হলো,শুকুরদীর লিটনের ছেলে জাহিদ হোসেন (২০),সিরাজুলের ছেলে লিটন (৪৫),একাধিক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি তকবির কসাই (৪০) ও তকবির কসাইয়ের ছেলে আবু সাঈদ (১৮)।
জানা যায়,গত বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ভাগলপুর গ্রামে সন্ত্রাসীরা এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী বকুল আহমেদের নের্তৃত্বে এ হামলার ঘটনা ঘটায়।
আহত মহিউদ্দিন বলেন,মাদকসহ একাধিক মামলার পলাতক আসামি তকবির ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা প্রায়ই আমার ও আমার ভাইয়ের বাড়ির আঙ্গিনার ভেতরে ঢুকে ইয়াবা সেবন করে। আমি বাধা দিলে তারা ক্ষুব্ধ হয়ে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। তারই সূত্র ধরে বৃহস্পতিবার বিকেলে আমার বাড়ীর সামনের রাস্তায় আসামিরা, আমাকে ও আমার স্ত্রী নুরুনাহারের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।একই সময় আমার ছেলে নুরু নবী অফিস শেষে বাড়ি ফেরার পথে তার ওপরও হামলা চালিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও পিটিয়ে পুরো শরীরের একাধিক স্থানে গুরুতর জখম করে।

এ বিষয়ে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন,অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়েছে, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।


এসএস/বি

Post a Comment

[blogger]

যোগাযোগের ফর্ম

Name

Email *

Message *

Theme images by merrymoonmary. Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget