নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজারে চেয়ারম্যান ও মেম্বার গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষ আহত ১০।



মামুন আহমেদ জয়,আড়াই হাজার প্রতিনিধিঃ

 নারায়নগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার উচিৎপুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজিমুদ্দীন ও একই ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড মেম্বার মোহাম্মদ আলী গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে নারী সহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।
মঙ্গলবার (২৮-৭-২০২০) সকালে আতাদি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানায় পুর্ব শত্রুতার জের ধরে সকাল ৯ টার দিকে মোহাম্মদ আলী মেম্বারের নেতৃত্বে জয়নাল,কাসেম সহ প্রায় শতাধীক লোকজন টেটা,বল্লম সহ দেশীয় শস্য অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে নাজিম চেয়ারম্যান ও তার অনুসারীদের বাড়িতে হামলা চালায়। তাদের হামলায় চেয়ারম্যানের অনুসারীদের মধ্যে সোহরাব (৩০), রেখা (৩৬),সজিব (২৫), হানিফা ৪৫),রাহিমা (৪২), আলামিন (৪০), জসিম (৫৫) আহত হন।

স্বজনরা আহতদের উদ্ধার করে সোহরাব এবং রেখাকে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করেন। অন্যদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা করান। সংঘর্ষ চলাকালীন সংবাদ পেলে আড়াইহাজার থানা পুলিশের এস,আই রোকন সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এসময় মোহাম্মদ আলী মেম্বারের গ্রুপের কাছে জিম্মি চেয়ারম্যানের ভাতিজা আশিককে উদ্ধার করে পুলিশ।  

ওই সংঘর্ষের ঘটনায় রুবেলদের দ্বিতল ভবনের  জানালার থাই গ্লাস ভাংচুর সহ চেয়ারম্যান এবং সোহরাবের বাড়িতে ভাংচুর চালায় সন্ত্রাসীরা। আতাদী গ্রামের মাতবরের ছেলে হাসিম জানান, মোহাম্মদ আলী মেম্বার, জয়নাল ও কাসেম এ তিনজন লোকের কাছে এলাকাবাসী জিম্মি। তারা এলাকায় চাঁদাবাজিতে ওস্তাদ। ইতিমধ্যে জোর করে আতাদী গ্রামের আসাবদ্দীনের ৯০ শতক জমি দখল করে মাছের খামার করেছে তারা। 

চেয়ারম্যান নাজিমুদ্দীন জানান,সন্ত্রাসীরা  হামলা করে চলে যাওয়ার সময় আমাকে এবং আমার ভাই জসিম উদ্দীনকে প্রান নাশের হুমকি প্রদান করে।

এ ব্যপারে আড়াইহাজার থানার ওসি মোঃ নজরুল ইসলাম জানান ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

No comments

Powered by Blogger.