সোনারগাঁওয়ে এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার,আটক ২

সদ্য সংবাদ ডেস্কঃ  

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁও উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ী মজলিস এলাকায় সাবেক স্বামীর হাতে আঁখি আক্তার (২৬) নামের এক নারী খুন হয়েছেন।

আজ (২৫ আগষ্ট) সকাল আনুমানিক ১১টার দিকে মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ি মজলিশ এলাকায় সলিমুল্লাহ মিয়ার ভাড়াটিয়ার রুমে এ ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে সোনারগাঁ থানা ইনচার্জ রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের ফরেনসিক বিভাগের সিআইডির একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহত আঁখির লাশ ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা মর্গে প্রেরণ করে।হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। 

সাবেক স্বামী রুবেল (৩০) শম্ভুপুরা ইউনিয়নের মুগারচর এলাকার মফিজুলের ছেলে।

রুবেলের এক দুঃসম্পর্কের আত্মীয় নিপা আক্তার জানান, মঙ্গলবার সকাল ১১টা দিকে রুবেল তার সাবেক স্ত্রী আঁখিকে নিয়ে আমার বাড়িতে আসে।

তারা জানান, দুজনের মধ্যে যে ভুল বোঝাবুঝি আছে তা কথা বলে মিমাংসা করবেন। সেজন্য তারা আমার ঘরে বসতে চায়। আমি পূর্ব পরিচিত বিধায় তাদের ঘরে বসতে দিয়ে আমি বাড়ির ছাদে চলে যাই। ছাদ থেকে ফিরে রুমে প্রবেশ করার সময় আমি কিছু বুঝে উঠার আগেই রুবেল আমাকে ধাক্কা দিয়ে রুম থেকে বের হয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে রুমে গিয়ে দেখি তার স্ত্রী আঁখির গলাকাটা লাশ পড়ে আছে।

এ ঘটনায় আমি কিছুক্ষনের জন্য বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ি। পরে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা বাজারে গিয়ে রুবেলের বাবা মফিজুলকে বিষয়টি জানাই। পরে দু’জনই থানায় গিয়ে পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করি। নিপা আরো জানান, একই এলাকার হাবিবপুর ভাড়া থাকার সময় রুবেলদের সাথে তাদের পরিচয় হয়। সেই সুত্র ধরেই আজ সকালে সে আমার বাড়িতে আসে তার সাবেক স্ত্রীর সাথে কথা বলবে বলে।

পুলিশ জানান, রুবেলের সাথে গত ৬ বছর আগে বিয়ে হয় বন্দর উপজেলার বাদুরী এলাকার নজরুল ইসলামের মেয়ে আঁখির সাথে। তাদের দাম্পত্য জীবনে হোমাইরা নামের একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। গত ৩ মাস আগে পারিবারিক কলহের জের ধরে তাদের বিচ্ছেদ ঘটে। মঙ্গলবার সকালে তাকে একটি বাসায় ডেকে নিয়ে এসে গলা ও পায়ের রগ কেটে হত্যা করে সে পালিয়ে যায়।

পুলিশ আরো জানায়, হত্যার নমুনা দেখে মনে হচ্ছে আঁখিকে ডেকে এনে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ রুবেলের পিতা মফিজুল ও নিপাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, বাড়ি মজলিশ এলাকা থেকে এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্তের জন্য নিপা আক্তার ও রুবেলের বাবাকেও আটক করা হয়েছে।

এসএস/বি

No comments

Powered by Blogger.