সোনারগাঁও বাসিকে ঈদ-উল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান।

 সদ্য সংবাদ ডেস্কঃ


সোনারগাঁও বাসিকে ঈদ-উল আযহার  শুভেচ্ছা ও সতর্ক থাকার আহবান জানিয়েছেন সোনারগাঁও থানা পুলিশ। 

সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান এক শুভেচ্ছা বার্তায় বলেন,


প্রিয় সোনারগাঁবাসি।

আসসালামু আলাইকুম।

সকলকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা। আপনারা সকলে অবগত আছেন,আইন শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত একটি প্রশিক্ষিত প্রতিষ্ঠান" বাংলাদেশ পুলিশ" দেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে কাজ করছে নিরন্তর। এর সাথে বৈশ্বিক সংকট করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে এবং স্বাস্থ্যবিধি মানতে সার্বক্ষণিক কাজ করছে বাংলাদেশ পুলিশ।

করোনা মহামারী প্রতিরোধে কাজ করতে গিয়ে শতাধিক পুলিশ সদস্য দেশের জন্য জীবন উৎসর্গ করেছেন। দেশের উন্নয়ন এবং অগ্রযাত্রাকে সমুন্নত রাখার জন্য  যেকোনো মূল্যে দেশের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে বাংলাদেশ পুলিশ বদ্ধ পরিকর।

 মাননীয় ডিআইজি ঢাকা রেঞ্জ জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান পিপিএম (বার )বিপিএম-(বার) এবং নারায়ণগঞ্জ জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম (বার) স্যারের নির্দেশনা  সোনারগাঁ থানার পুলিশ সোনারগাঁ বাসির সার্বিক নিরাপত্তার জন্য সার্বক্ষণিক নির্ঘুম ২৪ ঘন্টা সেবা দেওয়ার জন্য অঙ্গীকারাবদ্ধ এবং যে কোনো ধরনের আইনি সেবা দিতে আমরা সদা প্রস্তুত।

আসন্ন ঈদুল আযহা উপলক্ষে আপনাদের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য দেশের  বিভিন্ন স্থানে ঘটে যাওয়া বেশ কিছু ঘটনার আলোকে কিছু  পরামর্শ দেয়া হলো। আশা করছি এগুলো মেনে চললে অনাকাঙ্ক্ষিত অনেক বিপদ থেকে আমরা রেহাই পেতে পারি।

১। পশু হাটে গিয়ে অপরিচিত কোনো লোকের দেয়া কিছু খাবেন না। পশু ক্রয় বিক্রয়ে লেনদেনকৃত টাকা জাল কিনা ভালোভাবে পরীক্ষা করে নিন।

২। দুষ্কৃতকারীরা পুলিশের ছদ্মবেশে(ডিবি পুলিশ পরিচয়ে) আপনার নামে থানায় মামলা আছে অথবা আপনার নামে মাদকের অভিযোগ আছে ভয় দেখিয়ে কৌশলে আপনার মোবাইল, টাকা -পয়সা ইত্যাদি  ছিনিয়ে নিতে পারে।    

এ বিষয়ে আপনারা সজাগ থাকবেন। এই ধরনের ঘটনা দেখলে  তাৎক্ষণিকভাবে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি, স্থানীয় লোকজন সহ তাদের চ্যালেঞ্জ করুন এবং থানার  জরুরী ভিত্তিতে ফোন দিন।

৩। ঈদের পূর্বে এলাকায় অপরিচিত আগন্তক যেমন পকেটমার ,মলম পার্টির সদস্য,চোর ,ডাকাত, প্রতারকদের আনাগোনা বেড়ে যায়। সন্দেহজনক  কোন ব্যক্তি বা গোষ্ঠীকে সন্দেহ হলে সোনারগাঁ থানায় অথবা পুলিশের জরুরী সেবা  ৯৯৯ ফোন দিন।

৪। ঈদের আগে ঈদ করার জন্য চাকুরীজীবী, ব্যবসায়ী বা বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ তাদের সোনার গহনা, নগদ টাকা বাড়িতে রেখে বাড়িঘর তালা মেরে পরিবারের সঙ্গে ঈদ করার জন্য গ্রামে চলে যান।

চোর ডাকাতরা কৌশলে তালা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে আপনার মূল্যবান সোনার গহনা টাকা-পয়সা চুরি করে নিয়ে যেতে পারে। ঈদে বাড়িতে যাওয়ার পূর্বে আপনার সোনা গহনা এবং নগদ টাকা পয়সা সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।

৫। রাতের বেলায় আপনার বাড়ির কাছে কোন ট্রাক, মোটরসাইকেল থামলে কিংবা আপনার বাড়িতে চোর/ডাকাত প্রবেশের চেষ্টা করলে আপনি টের পাওয়ার সাথে সাথে সোনারগাঁ থানা পুলিশকে অথবা পুলিশের জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন করে সংবাদ দিন। 

আপনার ফোন পাওয়ার সাথে সাথে আমারা দ্রুত আপনার বাড়িতে পৌঁছে চোর / ডাকাতদলকে গ্রেফতার করতে পারব।

৬। ব্যাংক থেকে অধিক পরিমাণ টাকা উত্তোলন এবং জমা দেয়ার সময় পুলিশের সহায়তা নিন।

৭। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ঈদের দিন কোলাকুলি পরিহার করে দূর থেকে কুশলাদি বিনিময় করি।

৮। কোরবানির পবিত্রতা বজায় রাখি। পশু জবাই করার পর যত্রতত্র পশুর বর্জ্য রক্ত ফেলে না রেখে নিজেরা উদ্যোগী হয়ে পরিষ্কার করি। পলিথিনের মধ্যে কয়লা ভরে নির্দিষ্ট স্থানে  ফেলি।

৯। করোনা বিস্তার রোধে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন। সার্বক্ষণিক মাক্স পরিধান করুন। কিছুক্ষণ পরপর কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড পর্যন্ত হ্যান্ডওয়াশ অথবা সাবান দিয়ে হাত ধোবেন। হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন।

 ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন।

মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান, অফিসার ইনচার্জ, সোনারগাঁ থানা, নারায়ণগঞ্জ।

মোবাইল ফোন নম্বর-01320090533,

ইন্সপেক্টর (তদন্ত)-01320090534

ডিউটি অফিসার-01320090538

Post a Comment

[blogger]

যোগাযোগের ফর্ম

Name

Email *

Message *

Theme images by merrymoonmary. Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget