নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁয়ে,নির্মূল কমিটির জাতীয় গণহত্যা দিবস পালন।

 


সদ্য সংবাদ ডেস্কঃ


২৫ মার্চ, জাতীয় গণহত্যা দিবস।
১৯৭১ সালের এই রাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী এদেশের নিরপরাধ, নিরস্ত্র ও ঘুমন্ত সাধারণ মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করে।
এভাবে রাতের আঁধারে ঘুমন্ত মানুষের ওপর গুলি চালানোর ঘটনা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। এই নারকীয় হত্যাযজ্ঞসহ মুক্তিযুদ্ধকালীন গণহত্যার স্মৃতি স্মরণ করে সারা দেশে ন্যায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে শোকের আবহে দিনটি পালন করা হয়েছে।



২৫ মার্চ রাতে গণহত্যায় নিহতদের স্মরণে সোনারগাঁও উপজেলার ঐতিহাসিক গ্রান্ড ট্রাঙ্ক সড়কের পাশে নির্মিত বিজয় স্তম্ভে,শহীদদের স্বরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন সহ এক মিনিট ব্লাক আউট ও আলোচনা সভার কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করছে সোনারগাঁও উপজেলা একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি ও সোনারগাঁও উপজেলা প্রশাসন। রাত আটটা থেকে আটটা এক মিনিট পর্যন্ত ব্লাক আউট করা হয়।

সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতিকুল ইসলাম সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সোনারগাঁও উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির গণহত্যা দিবস পালন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা। অনুষ্ঠানে দেশাত্মবোধক গণসংগীত গান পরিবেশন করেন।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সোনারগাঁও উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি গোলাম মুস্তাফা মুন্না, সোনারগাঁও উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আরজুরুল হক, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম প্রধান,সোনারগাঁও থানার ওসি অপারেশন সাইদুজ্জামান, সোনারগাঁও উপজেলা একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম ইমাম, সাধারণ সম্পাদক গোলজার হোসেন ভূঁইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক শওকত ওসমান সরকার রিপন, যুগ্ম সম্পাদক ডাঃ শাহ আলম, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক এনায়েতুল ইসলাম শিপন, সদস্য নির্মল সাহা,পারভেজ,সাংবাদিক সুমন,সামির সরকার,নাসির উদ্দিন এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষজন।

এসময় বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে বাংলার মাটিতে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী যে হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল, সেটি ছিল ইতিহাসের অন্যতম নৃশংসতম গণহত্যা। অপারেশন সার্চলাইট নামে অভিযানটি পরিচালনার মাধ্যমে তারা স্বাধীনতাকামী ছাত্রজনতার প্রতিরোধকে স্তব্ধ করে দিতে চেয়েছিল। রাজারবাগ পুলিশ লাইন, পিলখানা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা শহরসহ সারা দেশে রাতভর এই হত্যাযজ্ঞ চালানো হয়।

সেই রাতে ভয়াবহতা ও মুক্তি সংগ্রামের শুরুর কথা তুলে ধরেন। বক্তারা বলেন, এক রাতেই ঢাকা শহর পরিণত হয় মৃত্যুপুরীতে। ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে পাকিস্তানি বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার আগেই তিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে যান, যার পথ ধরে শুরু হয় বাঙালির মুক্তিযুদ্ধ।
উল্লেখ্য, ২৫ মার্চকে জাতীয় গণহত্যা দিবস হিসেবে পালনের জন্য ২০১৭ সালের ১১ মার্চ সংসদে বিল পাস করা হয়। ওই বছর থেকে জাতীয়ভাবে গণহত্যা দিবস পালিত হচ্ছে।

এসএস/বি
Marcadores:

Post a Comment

[blogger]

যোগাযোগের ফর্ম

Name

Email *

Message *

Theme images by merrymoonmary. Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget