বালু ভরাটের টাকার ভাগাভাগি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় সোনারগাঁয়ে আহত আরো ১ জনের মৃত্যু।

 


সদ্য সংবাদ ডেক্সঃ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের পিরোজপুর ইউনিয়নের নয়াগাঁও গ্রামে একটি কোম্পানির বালু ভরাটকে কেন্দ্র করে গত ১৯ ও ২০ ফেব্রুয়ারী দুইদিনের সংঘর্ষের ঘটনায় চিকিৎসাধীন যুবলীগ নেতা সাইদুল ইসলাম (২৫) নামে আরো একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের ৩ জন মারা গেল। আরো দুই জনের অবস্থা এখনো আশংকাজনক বলেও জানা গেছে।



বীর মুক্তিযোদ্ধার ভাতিজা মৃত সাইদুল ইসলামের বড় ভাই শহিদুল্লাহ জানান,জাতীয় পার্টি নেতা আব্দুল আলী, সমর আলী, করিম, হাজী আলাউদ্দিন, বাদল, মন্জুর ও বিএনপি নেতা জলিল, কামরুল, খবির উদ্দিন পরিকল্পিত ভাবে নয়াগাঁওকে আওয়ামী লীগ মুক্ত করার এজেন্ডা নিয়ে যে নারকীয় হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে, এই ঘটনায় আমার ভাই মারা যায়।

নয়াগাঁও আওয়ামী লীগ শূন্য করার নিখুঁত পরিকল্পনার অংশ হিসেবে আলাউদ্দিন গং তাদের লাঠিয়াল দিয়ে তাদেরই লোক সমরআলীকে হত্যা পর মার্ডার মামলা দিয়েছে শুধুই নয়াগাঁও গ্রামের সকল আওয়ামী লীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের গ্রাম ছাড়া করার জন্য।

শুক্রবার রাতে ও শনিবার সকাল দুইদিনের পরিকল্পিত হামলায় মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবন্ধি, নারী ও শিশুসহ ৩০ জনকে তারা আহত করেছে। ৫০/৬০ টি বাড়ি-ঘর ভাংচুর ও লুটপাট করেছে।

শহিদুল্লা আরো বলেন,মনে হয় কিছু লেনদেনের বিনিময়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ নিরব ভুমিকা পালন করেছে,নইলে সংঘর্ষের সময় হাতে অস্ত্র সহ জাতীয় পার্টি নেতা আব্দুল আলীসহ তিনজনকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে গেলেও রহস্যময় কারণে সবাইকে ছেড়ে দেয়!

এসএস/বি

No comments

Powered by Blogger.