সোনারগাঁয়ে শীতবস্ত্র,নগদ অর্থ ও মিষ্টি বিতরণ করলেন গ্র্যাজুয়েট ফাউন্ডেশন। - সদ্য সংবাদ
আজ বঙ্গাব্দ,

শিরোনাম

 


Sunday, January 2, 2022

সোনারগাঁয়ে শীতবস্ত্র,নগদ অর্থ ও মিষ্টি বিতরণ করলেন গ্র্যাজুয়েট ফাউন্ডেশন।

  

সদ্য সংবাদ ডেস্কঃ 


 শীতের শুরুতেই সোনারগাঁয়ে অসহায়, ছিন্নমূল,প্রতিবন্ধী ও এতিমদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গ্র‍্যাজুয়েট ফাউন্ডেশন। শনিবার গভীর রাতে বিভিন্ন এলাকায় শীতার্তদের মাঝে এ শীতবস্ত্র ও নগদ অর্থ সাথে মিষ্টি বিতরণ করেন তারা। 



এ সময় উপস্থিত ছিলেন-ফাউন্ডেশনের পরিচালক সাংবাদিক দ্বীন ইসলাম অনিক, দুলাল,মাছুম বিল্লাহ,রুহুল আমিন,সাইফুল, বিল্লাল, সোহেল ও মিমরাজ সহ অনেকে।

গ্র‍্যাজুয়েট ফাউন্ডেশন সোনারগাঁয়ের চেয়ারম্যান মামুন মোল্লা বলেন,শীতের শুরুতেই সোনারগাঁয়ের মোগাড়াপাড়া চৌরাস্তা হতে মদনপুর পর্যন্ত রাতের আধারে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছি। সমাজের বিত্তবানরাও এ কাজে এগিয়ে আসবেন এই আমাদের প্রত্যাশা।

নির্বাহী পরিচালক সাংবাদিক দ্বীন ইসলাম  অনিক বলেন আমরা বছরের প্রথম দিন সেবামূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে শুরু করলাম সামনে এমন অনেক কার্যক্রম হাতে নিয়েছি। আমাদের দেখে অনুপ্রানিত হয়ে যদি সবাই এভাবে মানুষের পাশে দাঁড়ায় তাহলেই আমাদের স্বার্থকতা।

এদিকে শীতের শুরুতে শীতবস্ত্র পেয়ে খুশি অসহায় মানুষেরা। তারা বলেন, অনেকে শীত মওসুমের মাঝামাঝি বা শেষের দিকে শীতবস্ত্র দিয়ে থাকেন। এর চেয়ে শীতের প্রথমে পেলে আমাদের জন্য ভালো হয়। তাহলে আর শীত নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকতে হয় না। এক্ষেত্রে গ্র‍্যাজুয়েট ফাউন্ডেশন সোনারগাঁ ভালো উদ্যোগ নিয়েছে। শীতবস্ত্র হাতে পেয়ে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে শীতার্ত মানুষ। সুবিধাভোগীদের মধ্যে একজন নারী বলেন, এই শীতবস্ত্র ও নগদ টাকা পেয়ে খুবই উপকৃত হলাম। 



অন্যদিকে করোনা সংকটে খাদ্য সহায়তা,স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিতরণসহ বিভিন্ন সামাজিক এবং উন্নয়নমূলক কাজ করেছে গ্র‍্যাজুয়েট ফাউন্ডেশন।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে  গ্র‍্যাজুয়েট ফাউন্ডেশন সোনারগাঁ সংগঠনটি মূলত শিক্ষা,চিকিৎসা,সামাজিক সচেতনতা, বঞ্চিত শিশু,দুর্যোগ মোকাবেলা ও পরিবেশ এই ছয়টি সেক্টরে কাজ করছে। ইতোমধ্যে তারা প্রায় তিনশত অসুস্থ রোগীকে রক্তদান করে এক মানবিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

 এছাড়া বিভিন্ন স্থানে শীতার্তদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ সহ নানা ধরণের স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছে সংগঠনটি।


এসএস/বি


No comments:

Post a Comment